Cancer Hospital in India
Cancer treatment in india

ম্যাক্স ইনস্টিটিউট অফ ক্যান্সার কেয়ার

ম্যাক্স ইনস্টিটিউট অফ ক্যান্সার কেয়ার, ভারতের শীর্ষস্থানীয় হাসপাতালগুলির মধ্যে অন্যতম সেরা চিকিৎসা কেন্দ্র যা সার্জিকাল অনকোলজি, রেডিয়েশন অনকোলজি এবং মেডিকেল অনকোলজি বিভাগে সবচেয়ে ভালো এবং উন্নতমানের চিকিৎসা সরবরাহ করে। এই হাসপাতালে ১০০ জনেরও বেশি অনকোলজিস্ট রয়েছে তাই ম্যাক্স ইনস্টিটিউট অফ ক্যান্সার কেয়ার সমস্ত ধরনের ক্যান্সার যেমন ঘাড়, মাথা, স্তন, গ্যাস্ট্রোইনটেস্টাইনাল, ফুসফুস ইত্যাদির মতো বিভিন্ন ধরনের ক্যান্সার নিরাময়ের জন্য বিশ্ব-মানের চিকিৎসা পরিষেবা এবং অতিরিক্ত যত্ন প্রদান করে থাকে।

ক্যান্সারের প্রকারভেদ -

আমাদের শরীরের মধ্যে বিভিন্ন ধরনের ক্যান্সার হয়ে থাকে এবং প্রত্যেকটি ক্যান্সার নির্ণয় করার জন্য আলাদা আলাদা প্রক্রিয়া রয়েছে। কয়েকটি প্রচলিত ক্যান্সারের কথা নীচে উল্লেখ করা হয়েছে:
  1. স্তন ক্যান্সার - এই ক্যান্সারে মহিলাদের স্তন কোষগুলি অস্বাভাবিকভাবে বৃদ্ধি পায়। সারা বিশ্বজুড়ে এটি খুব সাধারণ একটি ক্যান্সারের ধরন এবং এটি পুরুষ ও মহিলা উভয়ের মধ্যেই হতে পারে। প্রাথমিক স্তরে পিণ্ডের আকারে এমআরআই ম্যামোগ্রামস বা এক্স-রে ম্যামোগ্রামের মাধ্যমে স্তন ক্যান্সার শনাক্ত করা যায়। অনেক ক্ষেত্রে টিউমারের ধরন, আকার এবং এমনকি রিসেপ্টারের স্থিতি শনাক্তকরণের জন্য স্তনের বায়োপসি করা হয়।
  2. গ্যাস্ট্রোইনটেস্টাইনাল ক্যান্সার - এই ধরনের ক্যান্সার গ্যাস্ট্রোইনটেস্টাইনাল ট্র্যাক্ট (জিআই ট্র্যাক্ট) এবং এর সাথে সম্পর্কিত অন্যান্য অঙ্গ যেমন খাদ্যনালী, পেট, লিভার, অগ্ন্যাশয়, পিত্তথলি, বৃহদন্ত্র, ক্ষুদ্রান্ত্র, মলদ্বার এবং মলদ্বারের ম্যালিগন্যান্ট‌ পরিস্থিতি বোঝায়। গ্যাস্ট্রোইনটেস্টাইনাল ক্যান্সারে, প্রায়শই গ্যাস্ট্রোইনটেস্টাইনাল অঞ্চলে একটি মাংসপিণ্ড বা আলসার শনাক্ত করা হয় যা পুরো অভ্যন্তরের আস্তরণের মধ্য দিয়ে ছড়িয়ে পড়ে। ম্যাক্স হাসপাতালে, আমরা লিভার, ক্ষুদ্রান্ত্র, খাদ্যনালী, পেট, অগ্ন্যাশয় এবং আরও অন্যান্য ধরনের গ্যাস্ট্রোইনটেস্টাইনাল অঙ্গগুলির জন্য ক্যান্সারের চিকিৎসা সরবরাহ করে থাকি।
  3. মাথা এবং ঘাড়ের ক্যান্সার - মাথা এবং ঘাড়ের ক্যান্সারের অর্থ হল মুখ, নাক, গলা, ল্যারিংক্স, সাইনাস বা লালা গ্রন্থির কোষগুলি অস্বাভাবিকভাবে বৃদ্ধি পায়। মাথা ও ঘাড়ের ক্যান্সারের মধ্যে রয়েছে ওরাল ক্যান্সার, ল্যারিনজিয়াল ক্যান্সার, ফ্যারিঞ্জিয়াল ক্যান্সার, থাইরয়েড ক্যান্সার, লালা গ্রন্থি টিউমার, প্যারাথাইরয়েড টিউমার, নাসিকা গহ্বরের ক্যান্সার এবং ত্বকের ক্যান্সার।
  4. হেমাটোলজি-অনকোলজি - ব্লাড ক্যান্সারের সময় রক্ত-উত্পাদনকারী কোষগুলির অনুপযুক্ত কার্যকারিতার কারণে রক্তের সিক্রেশন বিরূপভাবে প্রভাবিত হয়। এই ধরণের ক্যান্সার সাধারণত অস্থি মজ্জাকে আক্রমণ করে যা মানবদেহে রক্ত ​​উত্পাদনের প্রাথমিক উত্স হিসাবে পরিচিত। অস্থি মজ্জার স্টেম সেলগুলি মূলত তিন ধরণের রক্তকণিকা তৈরি করার জন্য দায়ী, যেমন রক্তের লোহিত রক্তকণিকা, শ্বেত রক্তকণিকা এবং প্লেটলেট।
  5. গাইনোকোলজিক এবং ইউরোলজিক ক্যান্সার- গাইনোকোলজিক অনকোলজি জটিল বিনাইন গাইনোকোলজিক রোগ নির্ণয়ের জন্য একটি সমন্বিত পদ্ধতি সরবরাহ করে। এই ধরনের ক্যান্সারের মধ্যে ভ্যালভার ক্যান্সার, ফাইব্রয়েডস, এন্ডোমেট্রিওসিস, যোনির ক্যান্সার, জরায়ু ক্যান্সার এবং সার্ভি‌ক্যাল ক্যান্সার রয়েছে।
  6. ইউরোলজিক ক্যান্সার- এই ধরনের ক্যান্সার পুরুষ এবং স্ত্রীদেহের মূত্রাশয়ের অঙ্গ এবং পরিকাঠামোকে প্রভাবিত করে। এই ক্যান্সার বিভিন্ন ধরনের হয় এবং এর চিকিৎসা রোগের প্রকার হিসাবে সম্পন্ন করা হয়।
  7. থোরাসিক ক্যান্সার- থোরাসিক ক্যান্সার এক ধরণের ক্যান্সার যা ফুসফুসের মধ্যে শুরু হয়। এটি পুরুষ এবং মহিলাদের মধ্যে ক্যান্সারঘটিত মৃত্যুর প্রধান কারণ। ভারতের ম্যাক্স হাসপাতালে আমাদের মধ্যে সেরা অনকোলজিস্ট রয়েছে যারা ফুসফুসের ক্যান্সার, বুকের প্রাচীরের টিউমার, মিডিয়াস্টিনাল টিউমার, খাদ্যনালীর ক্যান্সার, মেসোথেলিয়োমাস, পালমোনারি এবং প্লুরাল মেটাস্ট্যা‌সিস সহ বিভিন্ন ধরনের বক্ষ ক্যান্সারের উপর বিশেষভাবে অভিজ্ঞ।

রোগ নির্ণয় -

ক্যান্সার নির্ণয়ের জন্য, চিকিৎসকরা এক বা একাধিক পদ্ধতি ব্যবহার করতে পারেন যা এক একজনের থেকে আলাদা হতে পারে। ক্যান্সার নির্ণয়ের কিছু পদ্ধতি নিচে আলোচনা করা হল:
  1. শারীরিক পরীক্ষা - শারীরিক পরীক্ষায়, চিকিৎসকরা শরীরের মধ্যে লাম্পসের উপস্থিতি অনুভব করতে পারেন এবং অঙ্গ-বৃদ্ধি, ত্বকের রঙ পরিবর্তন ইত্যাদির মতো উল্লেখযোগ্য অস্বাভাবিকতাও দেখতে পারেন।
  2. ল্যাবরেটরি পরীক্ষা - রক্ত ​​এবং মূত্র পরীক্ষার মতো ল্যাব পরীক্ষাগুলি শারীরিক অস্বাভাবিকতা শনাক্ত করতে অত্যন্ত প্রয়োজনীয়।
  3. ইমেজিং পরীক্ষা - সিটি স্ক্যান (একটি কম্পিউটারাইজড টমোগ্রাফি), এমআরআই, হাড় স্ক্যান, পিইটি (পজিট্রন এমিশন টমোগ্রাফি) স্ক্যান, এক্স-রে, এবং আল্ট্রাসাউন্ডের মত ইমেজিং পরীক্ষাগুলি হল ক্যান্সার সনাক্তকরণে অত্যন্ত কার্যকর।
  4. বায়োপসি - বায়োপসি পরীক্ষার সময় শরীরের মধ্যে সন্দেহজনক কোষগুলির একটি নমুনা সংগ্রহ করা হয়। পরে কোষের এই নমুনাগুলি একটি মাইক্রোস্কোপের নীচে পরীক্ষা করা হয়, যেখানে স্বাস্থ্যকর কোষগুলি আলাদা করে দেখায় এবং ক্যান্সারের কোষগুলির মধ্যে শৃঙ্খলতা নেই বলে মনে হয়।

আমাদের হাসপাতালের সম্পর্কে আমাদের রোগীরা যা বলেন তা শুনুন

চিকিত্সা

বিশেষজ্ঞের কথা শুনুন

বিশেষজ্ঞের কথা শুনুন

সচরাচর জিজ্ঞাসা করা হয় এমন প্রশ্নাবলী

আপনাদের হাসপাতাল কি উন্নতমানের পরিষেবার জন্য আন্তর্জাতিকভাবে প্রত্যয়িত?

আমরা ভারতবর্ষের মধ্যে বিস্তীর্ণ এবং বিরামহীনভাবে বিশ্বমানের স্বাস্থ্যসেবা প্রদান করে থাকি। গোটা ভারতবর্ষে আমাদের ১৪টি অত্যাধুনিক হাসপাতাল সহ একটি সুবিশাল নেটওয়ার্ক রয়েছে, যার মধ্যে আমরা ২৯ ধরনের চিকিৎসা বিভাগে অত্যাধুনিক প্রযুক্তির সাহায্যে সর্বোৎকৃষ্ট চিকিৎসা পরিষেবা প্রদান করে থাকি। আমাদের হাসপাতালে নিজের কাছে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ এবং আন্তর্জাতিক স্তরের দক্ষতা সম্পন্ন ২৩০০ এরও বেশি শীর্ষস্থানীয় চিকিৎসক রয়েছেন, যারা আন্তর্জাতিক ব্যয়ের একটি খুব কম অংশে শ্রেষ্ঠ এবং সর্বোচ্চ মানের চিকিৎসা প্রদান করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। ম্যাক্স হসপিটাল তার সুপার-স্পেশালিটি (অত্যাধুনিক) সুবিধার জন্য এবং রোগীদের উচ্চমানের পরিষেবা দেওয়ার জন্য আইএসও (ISO) অনুমোদন এবং এনএবিএইচ (NABH) স্বীকৃতি লাভ করেছে।

আমি নিশ্চিত হতে পারছি না আমি ভারতীয় খাবার খেতে পারব কিনা? এবং আমার একটি নির্দিষ্ট ধরনের পছন্দের খাদ্যতালিকা রয়েছে। আমি কিভাবে মানিয়ে চলতে পারব?

ম্যাক্স হাসপাতাল আপনার খাবারের পছন্দগুলি যত্ন নেবে। আমাদের একটি দল রয়েছে যা আপনার প্রয়োজনীয়তা দেখাবে।

অন্য দেশে যাওয়ার আগে আমাকে সংশ্লিষ্ট চিকিৎসকের সাথে কথা বলতে হবে। এটা কি সম্ভব?

হ্যাঁ অবশ্যই। আপনাকে কেবল আপনার প্রয়োজনীয় তথ্যের ফর্মটি প্রথমে পূরণ করতে হবে, বাকি সমস্ত কিছু ম্যাক্স হাসপাতালের কর্মীবৃন্দ যত্ন নেবেন।

WhatsApp